পরিচালকের বক্তব্য

পরিচালক সম্পর্কে :

নাম : হাফিয মাওলানা ফখরুযযামান

পিতা : জনাব মরহুম আজমল আলী
মাতা: মুছাম্মাত ফুলই বিবি
গ্রাম : কেছরী মধ্যপাড়া
ডাক : জকিগঞ্জ
থানা : জকিগঞ্জ
জেলা : সিলেট

জন্ম ও জন্মস্থান
১৩৮০বাংলার মাঘ মাসের কোনো এক শুক্রবার জুমুআর নামাযের সময় নিজের পৈত্রিক বাড়িতে জন্ম। যা জকিগঞ্জ পৌরসভার…নং ওয়ার্ডের কেছরি মধ্যপাড়া মসজিদ সংলগ্ন উত্তর-পশ্চিম কোনায় অবস্থিত। ২৫ বর্ণালি আ/এ

বংশ পরিচয়
পিতা-মরহুম আজমল আলী মাতা-মুছাম্মাত ফুলই বিবি। নানা বাড়ি ভারতের আসাম রাজ্যের করিমগঞ্জের তালতলা নামক গ্রামে। নানার নাম মরহুম ইবরাহীম আলী।
বংশ তালিকা নিম্নরুপ ঃ
ফখরুযযামান বিন আজমল আলী বিন ইসমাঈল আলী বিন শাহ মাসূম বিন মুনাইম খা বিন দুর্লভ খা বিন দুধ খা। ওই দুধ খা-ই বর্তমান ভারতের করিমগঞ্জের দক্ষিণ কালিগঞ্জের বাগবাড়ি নামক গ্রাম থেকে প্রথমে করিমগঞ্জের ভাঙ্গায় এরপর জকিগঞ্জের ভরণ নামক গ্রামে আসেন। ওখান থেকেই পরবর্তীতে কেছরিতে এসে বসতি স্থাপন করেছিলেন।
আর্থিক দুর্বলতা থাকলেও পারিবারিক পরিবেশে ছিল দ্বীনদারী। মাতা-পিতা উভয় ছিলেন খলিফায়ে মাদানী শায়খ আবদুল গফফার মামরখানী রাহ.এর মুরিদ। বুজুর্গদের আসা যাওয়া ছিল সবসময়। বিশেষ করে শায়খ আবদুল খালিক মাড়কুনী রাহ. এর সাথে ছিল ঘনিষ্ট সম্পর্ক।

শিক্ষাজীবন
লেখাপড়ার হাতেখড়ি প্রথমে ঘরে মায়ের কাছে। এরপর বাড়ির সম্মুখস্থ মসজিদের মক্তবে। প্রাতিষ্ঠানিক লেখাপড়ার শুরু-স্থানীয় জামেয়া ছৈয়দিয়া মাইজকান্দিতে ভর্তি হওয়ার মধ্য দিয়ে। ইবতেদায়ি ১ম থেকে মুতাওয়াসসিতা ৩য় পর্যন্ত -মাইজকান্দি মাদরাসায়। মুতাওয়াসসিতা ৪র্থ,সানভী ২য়, ৩য় ও ফযিলত ১ম বর্ষ পর্যন্ত -জামেয়া কাসিমুল উলুম মেওয়ায়। মধ্যখানে সানভী ১ম বর্ষ -জামেয়া তওক্কুলিয়া রেঙ্গায়। ১৪১৪-১৪১৫ হিজরী সনে মেওয়া মাদরাসায় মিশকাত জামাতে ভর্তি হওয়ার পর ত্রৈমাসিক পরীক্ষার বন্ধের সময় হিফয পড়ার লক্ষ্যে জামেয়া ইসলামিয়া হাফিযিয়া বুধবারিবাজারে ভর্তি হই। ইতোপূর্বে একা একা ১২ পারা মুখস্থ করেছিলাম। আর তা শুরু হয়েছিল রেঙ্গা মাদরাসায় পড়াকালীন সময়। ১৬/০৮/১৯৯৩ ইংরেজীতে হিফয আরম্ভ করে ২৮/১২/১৯৯৩ তারিখে শেষ হয়। ওই বৎসরই ফাইন্যাল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ১ম বিভাগে উত্তীর্ণ হই। ওই বৎসর রামাযানে কালিজুরি জামে মসজিদে জীবনের প্রথম তারাবীহের নামায পড়াই। ফযীলত ২য় ও তাকমিল ফিল হাদিস-জামেয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মুহাম্মদপুরে। কিছুদিন তাখাসসুল ফিল আদব দারুল মাআরিফ আল ইসলামিয়া চট্রগ্রামে।
দারুল মাআরিফ থাকাকালীন আল জামেয়াতুল ইসলামিয়া মদীনা মুনাওয়ারার পক্ষ থেকে আরাবী ভাষা ও সাহিত্যের উপর মাসব্যাপি প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করে মুমতায বিভাগে উত্তীর্ণ হই।
ফারিগ সন: ১৯৯৬ ইংরেজি

কেন্দ্রীয় পরীক্ষার ফলাফল

কর্মজীবন :

শিক্ষকতা:

১৯৯৮ইংরেজীতে কর্মজীবনের শুরু জামেয়া ইসলামিয়া আব্বাসিয়া কৌড়িয়া, বিশ্বনাথ-এ শিক্ষকতার মধ্য দিয়ে।এরপর ১৯৯৯-২০০৬ ইংরেজী পর্যন্ত 
জামেয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মুহাম্মদপুর, বিয়ানীবাজার-এ শিক্ষকতা করি।১লা নভেম্বর ২০০৫ ইংরেজীতে মসজিদে এলাহিতে ইমাম ও খতিব হিসাবে
যোগদান। উল্লে¬খ্য, ২০০৫ ইংরেজী সনে  সিলেট থেকে গিয়ে আঙ্গুরায় শিক্ষকতা করি।
২০০৭ ইংরেজী শাহপরান জামেয়া ইসলামিয়াতে এক বছর।
২০০৮ইংরেজী জামেয়া হুসাইনিয়া ইসলামিয়া ঝেরঝেরিপাড়ায় এক বছর।
২০০৯ ইংরেজীতে জামেয়া ইসলামিয়া ফরিদাবাদ সিলেট প্রতিষ্ঠা। বর্তমানে ওখানেই পরিচালক হিসাবে কর্মরত।
২০১৪-১৬ ইংরেজিতে জামেয়া ইসলামিয়া দক্ষিণকাছ মাদরাসায়।
সেক্রেটারি,আল কলম গবেষণা পরিষদ বাংলাদেশ।
প্রচার সম্পাদক, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ, সিলেট জেলা শাখা।
সেক্রেটারি, আল মা’আরিফ ফাউণ্ডেশন,সিলেট, বাংলাদেশ।
পরিচালক, মাকতাবাতুল মাআরিফ, কুদরতুল্লাহ মার্কেট, সিলেট।
নির্বাহী পরিচালক, নর্দান সিলেট এসোসিয়েট্স লি.।
পরিচালক, আল ইহসান একাডেমি জকিগঞ্জ।
 
বৈবাহিকজীবন
১৪/০৮/২০০৪ ইংরেজী, মোতাবিক ২৫/০৬/১৪২৫ হিজরীতে বারঠাকুরি নিবাসী মরহুম মাও. সিদ্দিক আহমদ সাহেবের একমাত্র কন্যার সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হই। বর্তমানে দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছেন।
 
 
রচনাবলি